1. rashedhabiganj@gmail.com : admin2020 :
  2. habiganjerayna@gmail.com : Habiganjer Ayna : Habiganjer Ayna
রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ০২:২১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
হবিগঞ্জে সায়হাম কটন মিলের আগুন থামেনি, জেলা প্রশাসকের পরিদর্শন অবশেষে ডিসির নির্দেশে বহু অপকর্মের হোতা প্রতারক আফজাল ধরাশায়ী, অতঃপর জেলহাজতে চুনারুঘাটে ৭ শতাধিক পরিবারে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করেছে প্রবাসী গ্রুপ ‘হবিগঞ্জ জেলার পুলিশ মুক্তিযোদ্ধাদের বীরগাথা’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন শুদ্ধাচার পুরস্কারের টাকায় চিকিৎসকদের সুরক্ষায় গ্লাস কর্ণার করে দিলেন সওজ নির্বাহী প্রকৌশলী হবিগঞ্জে মৎস্য সপ্তাহে জেলা প্রশাসকের নতুন কর্মসূচী, ‘জাল দাও, ত্রাণ নাও’ হবিগঞ্জে বিপূল পরিমাণ অবৈধ জাল আটক করে পুড়িয়ে ধ্বংস, কারাদণ্ড হবিগঞ্জে জেলেদের নিরাপত্তায় লাইফ জ্যাকেট ও প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ বিতরণ মাধবপুরে অবৈধ বালু উত্তোলন ও পরিবহনের দায়ে ২ জনকে অর্থদণ্ড হবিগঞ্জে নকল কারখানা, ৩ জনের কারাদণ্ড-লাখ টাকা জরিমানা

হবিগঞ্জে দরিদ্র কৃষক পরিবারে শিশু খাদ্য বিতরণ

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২০
  • ৬২ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার : হবিগঞ্জের হাওরাঞ্চলে দরিদ্র কৃষক পরিবারে শিশু খাদ্য প্রদান করেছে জেলা প্রশাসন। এছাড়া প্রত্যন্ত অঞ্চলে ধানকাটা শ্রমিকদের চাল ও খাদ্য সামগ্রী প্রদান করা হয়। আজ সকালে ও বুধবার সারাদিন আজমিরীগঞ্জ উপজেলার হাওরপাড়ের দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মাঝে এসব খাদ্য সামগ্রী প্রদান করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান।
প্রথমে জেলা প্রশাসক শিবপাশা হাওরের ধানকাটা শ্রমিকদের উদ্দিপনা প্রদান করতে চাল, বিভিন্ন খাদ্যসামগ্রী মাস্ক প্রদান করেন। পরে হাওরপাড়ের দরিদ্র পরিবারের শিশুদের গুড়ো দুধ প্রদান করেন জেলা প্রশাসক। এছাড়া তিনি আজমিরীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তপক্ষের কাছে ভর্তি শিশুদের জন্য গুড়ো দুধ প্রদান করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মামুন খন্দকার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মতিউর রহমান, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফারুকুল ইসরাম, পিআইও মোহাম্মদ আলী প্রমূখ। পরে তিনি বানিয়াচং উপজেলার বিভিন্ন হাওরে ধানকাটা শ্রমিকদের খাদ্য সামগ্রী প্রদান করেন। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান জানান, হবিগঞ্জ জেলায় শ্রমিক সংকট নিরসনে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিশেষ সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। আমরা ধানকাটা শ্রমিকদের উদ্দীপনা দিতে নিয়মিত খাদ্য সামগ্রী প্রদান করে আসছি। বর্তমান পরিস্থিতিতে বেকার চা শ্রমিকসহ বিভিন্ন পেশার কর্মহীন শ্রমিকদের ধান কাটায় উদ্বুদ্ধ করেছি। তাদের আবাসন ও খাওয়ার যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে দিয়েছি। তিনি বলেন, কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন দিয়ে দ্রুততম সময়ে ধান কাটার ব্যবস্থা করেছি। বর্তমানে আমাদের জেলায় পর্যাপ্ত শ্রমিক মজুদ রয়েছে। আমরা সূনামগঞ্জ জেলায় ধান কাটতে শ্রমিক পাঠিয়েছি। এছাড়া কর্মহীন পরিবারের শিশুরা যাতে অপুষ্টিতে না ভোগে সেজন্য সরকারের পক্ষ থেকে বাড়ী বাড়ী গিয়ে গুড়ো দুধ প্রদান করছি। তিনি বলেন, সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্ঠায় আমরা এ দুর্যোগপূর্ণ সময় অতিক্রম করতে পারব ইনশাল্লাহ।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020
Theme Developed By ThemesBazar.Com